Wednesday, July 24, 2024

একের ভেতর তিন শহর

অর্থভুবন প্রতিবেদক

ভ্রমণবিষয়ক ওয়েবসাইট ট্রিপ অ্যাডভাইজারে দেওয়া এক পর্যটকের রিভিউয়ের ভাষা যে কারো দৃষ্টি আকর্ষণ করার মতোই, পিয়ার্স ব্রসনানকে একনজর দেখতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই ম্যাকলোতে আসতে হবে। সেখানে গেলে সত্যি সত্যিই জেমস বন্ডের দেখা মেলে। তবে সশরীরে নয়, দেয়ালে টাঙানো ছবিতে।

ব্রসনান সেখানে একাও নন।

তাঁর মতোই অন্যান্য অঙ্গনের তারকাদের মধ্যে আর যাঁরা ছবি হয়ে ঝুলছেন, তা-ও চাইলে ভেতরে ঢোকার আগেই জেনে ফেলা যায়। প্রবেশপথের ডিজিটাল স্ক্রিনেই তো পর পর ভাসছে আজ পর্যন্ত এখানে আতিথ্য নিয়ে যাওয়া সব তারকার ছবি। সুবাদে সুনামও এমন ছড়িয়ে পড়েছে যে ধর্মশালার শহরতলি ম্যাকলয়েডগঞ্জের প্রাণকেন্দ্রের ম্যাকলো রেস্তোরাঁয় বিশ্বের নানা দেশ থেকে আসা পর্যটকরা ঢু না মেরে পারেনই না।

একটি সংশোধনীও বোধ হয় এখানে দেওয়া যেতে পারে।

ম্যাকলয়েডগঞ্জের সঙ্গে শহরতলি শব্দটি একদমই যাচ্ছে না। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় সাত হাজার ফুট উঁচু পাহাড়ের খাঁজে খাঁজে গড়ে ওঠা জনপদের সৌন্দর্যের সঙ্গে আধ্যাত্মিকতা ও শান্তিকামী মানুষের নীরব আন্দোলন যোগ হয়েই এর নাম বিশ্বজুড়ে আরো ছড়িয়েছে। মূলত যাঁর জন্য, তিব্বতের সেই আধ্যাত্মিক নেতা চতুর্দশ দালাই লামা ১৯৫৯ সাল থেকেই আছেন এই শহরে। নিজের জন্মস্থান তিব্বতের লাসা থেকে পালিয়ে আসতে বাধ্য হওয়া এই ধর্মগুরুর পিছু নিয়ে হাজার হাজার তিব্বতি শরণার্থীরও ঠাঁই হয়েছিল এই ম্যাকলয়েডগঞ্জে।
 

তিব্বতের স্বাধীনতা আন্দোলন এখন পর্যন্ত সফল না হওয়ায় আর তাঁদের ফেরাও হয়নি। বরং এত দিনে বংশপরম্পরায় তাঁদের আরো বিস্তৃতিই ঘটেছে এখানে। তা ঘটলেও নিজেদের স্বাধীনতা আন্দোলন থেকে তাঁরা পিছু হটেননি। স্বাধিকারের স্বপ্নে তাঁদের ভারতনির্ভরতাও ম্যাকলয়েডগঞ্জের দেয়ালে দেয়ালে সাঁটা পোস্টারেই বোঝা যায়, জয় ভারত, জয় তিব্বত। তিব্বতের স্বাধীনতা মানেই ভারতের নিরাপত্তা।

 
কিছুদিন আগে ভারতে অনুষ্ঠিত জি২০ সম্মেলনের সময় এখানকার তিব্বতিদের চীনবিরোধী আন্দোলনের তীব্রতার প্রমাণও এখনো ম্যাকলয়েডগঞ্জের দেয়ালে বর্তমান, শি চিনপিং (চীনের প্রেসিডেন্ট), ইউ আর নট ওয়েলকাম। চীনের প্রতিশ্রুতিও যে তাঁদের অবিশ্বাসের দেয়াল ভাঙতে পারেনি, পোস্টারের ভাষাও তা বুঝিয়ে দেওয়ার পক্ষে যথেষ্ট, চীনের কূটনৈতিক নিশ্চয়তা মোটেও বিশ্বাস করার মতো নয়। প্রতিবাদ করেন, তবে তাঁদের পেছনে যখন আছেন অহিংস দালাই লামা, তখন তিব্বতিদের আন্দোলনও সহিংস হয়ে ওঠে না কখনোই।

শান্তিতে নোবেল পাওয়া এই ধর্মগুরুর সঙ্গে দেখা করতেই এই সহস্রাব্দের শুরুর দিকে ধর্মশালায় এসেছিলেন ব্রসনান। একই সঙ্গে ধর্মশালার সৌন্দর্যে ডুব দিয়ে গেছেন যেমন, তেমনি চেখে গেছেন ম্যাকলোর খাবারের স্বাদও। জেমস বন্ড সিরিজের গোল্ডেন আইটুমরো নেভার ডাইজদ্য ওয়ার্ল্ড ইজ নট এনাফ এবং ডাই অ্যানাদার ডে নামের মুভিগুলোতে সিক্রেট এজেন্টের ভূমিকায় অভিনয় করা হলিউড তারকা প্রকাশ্যেই দাঁড়িয়েছিলেন তিব্বতিদের পাশে। নিজেদের শিকড়ে ফিরতে না পারা এই মানুষগুলো ম্যাকলয়েডগঞ্জকেই বানিয়ে ফেলেছেন একটুকরা তিব্বত। শহরটি তাই শুধুই আর ভারতীয়দের থাকেনি। এখানে স্থাপত্য, জীবনাচরণ, পোশাক-আশাক থেকে শুরু করে খাওয়াদাওয়ায় তিব্বতেরও এমন ছাপ যে ম্যাকলয়েডগঞ্জের আরেকটি নামই হয়ে গেছে লিটল লাসা

ম্যাকলোর আশপাশে তাকালেই তা আরো স্পষ্ট হয়ে যায়। বিবিধ ব্যঞ্জনে পর্যটকদের রসনা তৃপ্ত করতে ম্যাকলো তো আছেই, অন্য রেস্তোরাঁগুলোর মধ্যে দু-একটির নামও একটু পড়ুনহট হাউস অব তিব্বত, লাসা ক্যাফে। বিশেষ করে পৃথিবীর অন্য প্রান্ত থেকে ঘুরতে আসা পর্যটকদের কাছে সবচেয়ে বেশি বিকোনো খাবার এসব রেস্তোরাঁর তিব্বতি ডাম্পলিং। পর্যটকদের ভিড়ে গমগম করা এই চক (মোড়) পেরিয়েই যেতে হয় এখানকার মাস্ট গো ডেস্টিনেশন দালাই লামার মন্দিরে। দালাই লামাও মাঝেমধ্যেই এখানে প্রকাশ্যে দেখা দেন। দিয়েছিলেন দু-এক দিন আগেও। বিশ্বকাপ কাভার করতে ম্যাকলয়েডগঞ্জ থেকে বেশ নিচে এবং আট কিলোমিটার দূরের হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (এইচপিসিএ) স্টেডিয়ামে যাওয়া-আসার পথে অল্পের জন্য তাঁর দেখা না পাওয়ার আফসোস নিয়েই এখান থেকে ফিরতে হচ্ছে।

ফেরার আগে এই শহরটি নিয়ে টানা উপসংহারটি একের ভেতরে তিন। এটি ভারতের শহর যেমন, তেমনি তিব্বতেরও। তবে এখানকার বিপণিবিতান থেকে শুরু করে রাস্তায় বসা অস্থায়ী দোকানে কাশ্মীরি শাল এবং পণ্যের সমাহারে কাশ্মীরকেও খুঁজে পাওয়া যায়। গাড়ি ভাড়া করে দর্শনীয় যেসব জায়গায় ঘুরতে যাবেন, তার একটি ম্যাকলয়েডগঞ্জের ডাল লেকও। জানেন তো নিশ্চয়ই যে কাশ্মীরের ডাল লেকে নৌকায় করে ঘুরে না বেড়ালে পর্যটক মন তৃপ্ত হয় না। এখানকার লেক খুব ছোট হলেও কাশ্মীর এখানে আছে। কাশ্মীরের শ্রীনগরও খুব দূরে নয় এখান থেকে। মেরেকেটে শচারেক কিলোমিটার হবে।

ধর্মশালার ম্যাকলয়েডগঞ্জ তাই একের ভেতর তিন শহরই!                    

spot_imgspot_img

ইস্ট আম্বার চাল সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক

বর্ষার সময় বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকে। ফলে আদি চালের বাইরে সাদা সাদা ইস্ট জমে। এটা মূলত প্রাকৃতিক ইস্ট। যা পাউরুটিকে নরম তুলতুলে...

দক্ষ জনশক্তি গড়তে ১১৭ কোটি টাকা দিল কোইকা

নিজস্ব প্রতিবেদক,অর্থভুবন দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে বাংলাদেশকে ১১৭ কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা দিয়েছে কোরিয়া ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (কোইকা)। গতকাল বুধবার প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান...

বাকিংহাম প্যালেস : এবার ব্যালকনির পেছনের ঘরটি দেখার সুযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক,অর্থভুবন বিশেষ বিশেষ দিনে বা ঘটনার ক্ষেত্রে বাকিংহাম প্যালেসের ব্যালকনি থেকে দেশবাসীর সামনে দেখা দিয়ে থাকেন রাজা বা রানিসহ ব্রিটিশ রাজপরিবারের সদস্যরা। সে কারণে...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here