Friday, June 21, 2024

৯২ বছর বয়সে স্কুলে যাচ্ছেন তিনি

অর্থভুবন প্রতিবেদক

সালিমা খান নামের ওই নারী বিদ্যালয়ে গিয়ে এখন পড়তে এবং লিখতে শিখেছেন। তার এই সাফল্য অনেককে অনুপ্রাণিত করেছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

১৯৩১ সালের দিকে জন্মগ্রহণ করেন সালিমা। মাত্র ১৪ বছর বয়সেই বিয়ে হয়ে যায় তার। কিন্তু তার স্বপ্ন ছিল লেখাপড়া শেখার। উত্তর প্রদেশের বুলন্দশহরের বাসিন্দা সালিমা বলেন, যখন তিনি ছোট ছিলেন তখন তার গ্রামে কোনো স্কুল ছিল না।

ছয় মাস আগে তিনি তার থেকে ৮০ বছরের ছোট শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পড়াশুনা শুরু করেন। বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে তার নাত বউ ছিলেন সঙ্গী। সম্প্রতি সালিমার ১ থেকে ১০০ পর্যন্ত গণনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পরে তার গল্পটি ছড়িয়ে পড়ে।

 

টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সালিমা বলেন, আমি টাকা গুণতে পারতাম। এই সুযোগে আমার নাতিরা আমার সঙ্গে প্রতারণা করে বেশি টাকা নিয়ে যেত। কিন্তু এখন সেইদিন আর নাই।

২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে ভারতের সাক্ষরতার হার প্রায় ৭৩ শতাংশ।

স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা প্রতিভা শর্মা বলেন, শিক্ষকরা প্রথমে সালিমাকে পড়াতে ‘দ্বিধাবোধ করেছিলেন’ কিন্তু পড়াশোনার প্রতি তার আগ্রহ দেখে আর দ্বিধা রাখতে পারেননি।

তিনি স্কুলে যাওয়ার পর থেকে তাকে দেখে গ্রামের আরও ২৫ জন মহিলা পড়াশোনা শুরু করেছেন। এর মধ্যে তার দুই পুত্রবধূও রয়েছেন।

spot_imgspot_img

ইতালিপ্রবাসীদের জন্য সুখবর দিল ভিএফএস

ভিএফএস গ্লোবালের অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসেছে ভিএফএস গ্লোবাল। এবার তারা ইতালিপ্রবাসীদের জন্য সুখবর নিয়ে এসেছে। ভিএফএস তাদের নিজস্ব ফেসবুক পেজের মাধ্যমে...

জেলখানার চিঠি বিকাশ চন্দ্র বিশ্বাস  কয়েদি নং: ৯৬৮ /এ  খুলনা জেলা কারাগার  ডেথ রেফারেন্স নং: ১০০/২১ একজন ব্যক্তি যখন অথই সাগরে পড়ে যায়, কোনো কূলকিনারা পায় না, তখন যদি...

কর্মসৃজনের ৫১টি প্রকল্পে নয়ছয় মাগুরায়

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) আওতায় দ্বিতীয় পর্যায়ের ৫১টি প্রকল্পের কাজে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। প্রকল্পে হাজিরা খাতা না...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here