Saturday, June 22, 2024

বাড়ি পাচ্ছেন সেই হামিদা বানু

অর্থভুবন প্রতিবেদক

ভাগ্যের ফেরে একসময় জেলে যেতে হয়েছিল। সেখান থেকেও মুক্তি মিলেছে গানের বদৌলতে। কিছুদিন আগেও হাসন রাজার বাড়িতে গৃহপরিচারিকা ছিলেন। ‘দিলারাম’ গানের সুবাদে এখন গোটা দেশ চেনে হামিদা বানুকে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় তাঁকে একটি বাড়ি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী। তিনি  বলেন, ‘হামিদা বানুকে নিয়ে কালের কণ্ঠসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে আমরা খোঁজখবর নিতে শুরু করি। সম্প্রতি তাঁর খালি কণ্ঠের গানও শুনি। তিনি একটি বাড়ি চেয়েছিলেন।
এখন একটি বসতবাড়ি তৈরি করে দেব আমরা। জেলা প্রশাসন তাঁকে হারমোনিয়ামও উপহার দিয়েছে। হামিদা বানু আড়ালের এক মেধাবী শিল্পী। তিনি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে আগামীতে আরো ভালো করবেন।’

সুনামগঞ্জের রঙ্গারচর ইউনিয়নের বনগাঁওয়ে জন্ম হামিদার।

 
বাবা লাল মিয়া বয়াতিও শিল্পী ছিলেন। বাবার সঙ্গে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যেতেন। একসময় বিভিন্ন ওরস মাহফিলে চলে যেতেন গাইতে। এমনই এক অনুষ্ঠানে একদিন সুনামগঞ্জের তৎকালীন মেয়র ও হাসন রাজার প্রপৌত্র মমিনুল মউজদীনের সঙ্গে পরিচয়। তিনি হামিদাকে আমন্ত্রণ জানান হাসন উৎসবে গাইতে।

 

এর কিছুদিন পর তাঁর বিয়ে হয়ে যায়। বন্ধ হয়ে যায় গান গাওয়া! একসময় ভাগ্যবদলের আশায় সীমান্ত পাড়ি দিয়েছিলেন। কিন্তু অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ধরা পড়েন। ১৬ বছরের জেল হয় তাঁর। তবে প্রায় সাড়ে তিন বছর জেল খাটার পর মুক্তি মিলল। জেলখানায় একবার এক দুর্গাপূজায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনটি গান পরিবেশনের সুযোগ পেয়েছিলেন হামিদা বানু। ঘটনাচক্রে সেখানে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হামিদার গানে মুগ্ধ হয়ে তিনি তাঁকে সাজা কমিয়ে মুক্ত করার উদ্যোগ নেন। 

পরে অবশ্য কাশ্মীর গিয়ে আট বছর ছিলেন হামিদা। দেশে ফিরলে স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এরপর তাঁর ঠাঁই হয় হাসন রাজা জাদুঘরে। একমাত্র মেয়েকে নিয়ে এখন হাসন রাজার প্রপৌত্র ও হাসন রাজা মিউজিয়ামের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামারীন দেওয়ানের আশ্রয়ে আছেন। হাসন রাজার দুই শতাধিক গান জানেন হামিদা।

 
 
spot_imgspot_img

ইতালিপ্রবাসীদের জন্য সুখবর দিল ভিএফএস

ভিএফএস গ্লোবালের অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসেছে ভিএফএস গ্লোবাল। এবার তারা ইতালিপ্রবাসীদের জন্য সুখবর নিয়ে এসেছে। ভিএফএস তাদের নিজস্ব ফেসবুক পেজের মাধ্যমে...

জেলখানার চিঠি বিকাশ চন্দ্র বিশ্বাস  কয়েদি নং: ৯৬৮ /এ  খুলনা জেলা কারাগার  ডেথ রেফারেন্স নং: ১০০/২১ একজন ব্যক্তি যখন অথই সাগরে পড়ে যায়, কোনো কূলকিনারা পায় না, তখন যদি...

কর্মসৃজনের ৫১টি প্রকল্পে নয়ছয় মাগুরায়

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) আওতায় দ্বিতীয় পর্যায়ের ৫১টি প্রকল্পের কাজে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। প্রকল্পে হাজিরা খাতা না...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here