Saturday, June 22, 2024

‘টাকা পে’ কার্ড কিভাবে কাজ করবে

দেশের প্রথম নিজস্ব ন্যাশনাল কার্ড স্কিম ‘টাকা পে’ চালু হয়েছে। গত বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে এক অনুষ্ঠানে এই কার্ডের মোড়ক উন্মোচন করেন। এর মাধ্যমে দেশের বিদেশি কার্ডের ওপর নির্ভরতা কমার পাশাপাশি ব্যাপক বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

টাকা পে কার্ডের ধরন হবে ভিসা ও মাস্টারকার্ডের মতো।

প্রাথমিকভাবে দেশে অভ্যন্তরীণ ব্যবহারের জন্য এটি চালু করা হয়েছে। ক্রমান্বয়ে এর মাধ্যমে টাকা-রুপি কার্ডও চালু করা হবে, যার মাধ্যমে প্রতিবেশী দেশ ভারতে লেনদেন করা যাবে।

নতুন ব্যাংক অ্যাকাউন্টের পাশাপাশি পুরনো ব্যাংক অ্যাকাউন্টেও এই কার্ডের মাধ্যমে সেবা নেওয়া যাবে। তবে এ ক্ষেত্রে অ্যাকাউন্টের বিপরীতে আগের নেওয়া ডেবিট কার্ডটি স্থগিত করে টাকা পে কার্ডের সেবা নেওয়া যাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক পরিচালিত ইলেকট্রনিক পেমেন্ট প্ল্যাটফরম ‘ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ’ ব্যবহার করে জাতীয়ভাবে একই সেবা দেবে টাকা পে কার্ড। বিদ্যমান ব্যাংক হিসাবের বিপরীতেও এই কার্ড নিতে পারবেন গ্রাহকরা।

প্রথমে আটটি ব্যাংক পাইলট ভিত্তিতে এই কার্ড ইস্যু করবে। পরবর্তী সময়ে অন্যান্য ব্যাংকও ইস্যু করতে পারবে।

ব্যাংকগুলো হলো ব্র্যাক ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক, সিটি ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক, ইস্টার্ণ ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক ও মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক।

 

প্রাথমিকভাবে রাষ্ট্রমালিকানাধীন সোনালী ব্যাংক, বেসরকারি খাতের দি সিটি ব্যাংক ও ব্র্যাক ব্যাংক এরই মধ্যে টাকা পে কার্ড সেবা চালু করেছে।

ব্যাংক বা অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোর ভিসা ও মাস্টারকার্ডের মাধ্যমে যেসব সেবা পাচ্ছে, একই সেবা টাকা পে কার্ড দেবে।

ব্যাংকাররা বলেন, জাতীয় ডেবিট কার্ড ভিসা ও মাস্টারকার্ডের মতো আন্তর্জাতিক কার্ড স্কিমগুলোর ওপর থেকে নির্ভরতা কমাবে। এর ফলে বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হবে।

ব্যাংকাররা আরো জানিয়েছেন, টাকা পে কার্ড প্রাথমিকভাবে অভ্যন্তরীণ লেনদেনের জন্য ব্যবহার করা হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদারসহ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

ব্র্যাক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম আর এফ হুসাইন বলেন, ‘এই কার্ড ব্যাংকিং খাতকে প্রযুক্তিতে আরো সজ্জিত ও স্বাবলম্বী করে তুলবে। আমরা এবং পুরো জাতি টাকা পে চালু করতে পেরে গর্বিত, কারণ এটি বাংলাদেশের প্রথম জাতীয় কার্ড স্কিম।’ তিনি আরো বলেন, ‘পাশাপাশি এটি গ্রাহকদের লেনদেনের খরচ সাশ্রয় করবে। আমরা মনে করি এটি ব্যাংকিং খাতের জন্য একটি বড় মাইলফলক, কারণ এটি দেশকে স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে এক ধাপ এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে।’

এর আগে গত ২ জুন বাজেট-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে ন্যাশনাল ডেবিট কার্ড প্রণয়নের উদ্যোগের কথা জানান গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার।

 
spot_imgspot_img

ইতালিপ্রবাসীদের জন্য সুখবর দিল ভিএফএস

ভিএফএস গ্লোবালের অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসেছে ভিএফএস গ্লোবাল। এবার তারা ইতালিপ্রবাসীদের জন্য সুখবর নিয়ে এসেছে। ভিএফএস তাদের নিজস্ব ফেসবুক পেজের মাধ্যমে...

জেলখানার চিঠি বিকাশ চন্দ্র বিশ্বাস  কয়েদি নং: ৯৬৮ /এ  খুলনা জেলা কারাগার  ডেথ রেফারেন্স নং: ১০০/২১ একজন ব্যক্তি যখন অথই সাগরে পড়ে যায়, কোনো কূলকিনারা পায় না, তখন যদি...

কর্মসৃজনের ৫১টি প্রকল্পে নয়ছয় মাগুরায়

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরে অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) আওতায় দ্বিতীয় পর্যায়ের ৫১টি প্রকল্পের কাজে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। প্রকল্পে হাজিরা খাতা না...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here