Wednesday, June 12, 2024

আদম তমিজীর ছলাকলা গ্রেপ্তার এড়াতে

বিভিন্ন সময় ফেসবুকে মন্তব্য করে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন ব্যবসায়ী আদম তমিজী হক। কখনো পাসপোর্ট ছিঁড়ে করেছেন রাষ্ট্রদ্রোহ অপরাধ, আবার কখনো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে করেছেন বাজে মন্তব্য। বিদেশে বসে এসব মন্তব্য করলেও সম্প্রতি তিনি দেশে এসেছেন। এবার তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্র ও প্রধানমন্ত্রীবিরোধী বক্তব্যের অভিযোগ এনে সাইবার নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। রাজধানীর দক্ষিণখান থানার ওসি মো. সিদ্দিকুর রহমান গত শনিবার এ মামলার তথ্য জানান।

এর আগে গত বুধবার মামলাটি করেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান নাঈম। মামলায় আদম তমিজী হক সম্পর্কে বলা হয়, তিনি একজন শিল্পপতি, ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক। তিনি এ টি হক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। 

দক্ষিণখান থানার ওসি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, মামলাটি সাইবার নিরাপত্তা আইনে হয়েছে। ফেসবুক, মোবাইল ও বিভিন্ন ইলেকট্রিক ডিভাইসের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে তমিজী হক অপমান, অপদস্থ করেছেন, রাষ্ট্রবিরোধী বিভিন্ন প্রচারণা চালিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আনিছুর রহমান নাঈম বাদী হয়ে মামলা করেছেন। আদম তমিজী হককে প্রধান আসামি এবং অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

 

এদিকে গ্রেপ্তার এড়াতে দাড়ি-গোঁফ কেটে নিজেকে খ্রিষ্টান ধর্মের অনুসারী বলে দাবি করেছেন হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আদম তমিজী হক। তাকে দ্রুত বাংলাদেশ থেকে উদ্ধারের জন্য ইসরায়েল সরকারের সহযোগিতাও কামনা করেছেন। গত শুক্রবার ফেসবুকে এক ভিডিওতে আদম তমিজীকে বলতে শোনা গেছে, ‘আমি ইসরায়েলের কাছে অভিযোগ জানাতে চাই। আমি বর্তমানে বাংলাদেশে। তিন দিন ধরে আমার বাসার পানি ও বিদ্যুতের লাইন বন্ধ করে রাখা হয়েছে। ঘরে খাবারও নেই, স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা ও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। দ্রুত আমাদের উদ্ধার করা দরকার। আমি জন্মসূত্রে খ্রিষ্টান, আমার খ্রিষ্টান কমিউনিটির কাছে সহযোগিতা চাই এবং ইসরায়েলের নাগরিকত্ব চাই।’

 

এ ছাড়া তমিজী হককে গ্রেপ্তারে তার বাসায় অভিযানে যাওয়ায় র্যাব কর্মকর্তাদের নানাভাবে বিভ্রান্ত ও আত্মহত্যার হুমকি দিচ্ছেন তিনি। একাধিকবার তাকে গ্রেপ্তারের জন্য গেলেও তা সম্ভব হয়নি। র্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র্যাব) আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে র্যাব সব নিয়ম মেনে আইনের আওতায় আনতে অভিযান চালায়। অভিযানে র্যাব ফোর্সের কর্মকর্তাসহ ম্যাজিস্ট্রেট, ডাক্তারকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল অভিযানে।

খন্দকার আল মঈন বলেন, অভিযানের সময়ে তমিজী হক বেশকিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটান। আমরা সব নিয়ম মেনে তাকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করি; কিন্তু তিনি নিজে ছুরি হাতে আত্মহত্যার হুমকি দেন, বাসায় জানালার গ্লাস ভেঙে ফেলেন, ভবন থেকে লাফ দেওয়ার হুমকি দেন। এর পরও যখন আটক করতে যাই, তখন তিনি স্ত্রীকেও ফেলে দেওয়ার হুমকি দেন। এমনকি কেউ যেন বাসা থেকে বের না হতে পারে, এজন্য বাসার প্রধান ফটক ঝালাই করেন। সার্বিকভাবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে তাকে গ্রেপ্তার করিনি। পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে তাকে গ্রেপ্তার করা হবে। পাশাপাশি তার বাসায় সার্চের ওয়ারেন্ট রয়েছে।

spot_imgspot_img

দেশের উপকূলে সেরা সব সমুদ্র সৈকত

সমুদ্র তটরেখার দেশ বাংলাদেশ। এ দেশ অপরূপ এক বদ্বীপ। আর এই বদ্বীপের জন্য প্রকৃতির আশীর্বাদ বঙ্গোপসাগর। সাগরের নোনা জলে অনেক কিছু পেয়েছে এদেশের মানুষ।...

‘ফুরমোন পাহাড়’ পর্যটকদের মুগ্ধ করছে

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি পাহাড়ি জেলা রাঙ্গামাটি। যেটি রূপের রানী নামে খ্যাত। পাহাড়, মেঘ, ঝিরি-ঝর্ণা, আঁকাবাঁকা পথের সঙ্গে মিশে আছে সুবিশাল মিঠাপানির কাপ্তাই হ্রদ। শহরে...

রাখাইনের সহিসংতা নৃশংসতার দিকে চলে যেতে পারে: যুক্তরাষ্ট্র

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহিংসতা এবং আন্তঃসাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বাড়ার কারণে যুক্তরাষ্ট্র গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। যুক্তরাষ্ট্র মঙ্গলবার এ কথা জানিয়ে বলেছে, রাখাইনের সহিসংতা নৃশংসতার দিকে চলে যেতে পারে। নভেম্বরে...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here